একটি বিআরটি সিস্টেম

Image
একটি বিআরটি সিস্টেম কি

যাত্রী সাধারণের গতিশীলতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পৃথিবীর বহুদেশে সফলতার সঙ্গে বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট সিস্টেম প্রবর্তন করা হয়েছে। বাস র‍্যাপিড ট্রানজিট সিস্টেম একটি বাস ভিত্তিক গণপরিবহন ব্যবস্থা যেখানে উন্নতমানের বাসগুলো সাধারণত ডেডিকেটেড লেনে দ্রুত ও নিরাপদে চলাচল করে যাত্রী পরিবহন করে থাকে। এ পদ্ধতিতে ষ্টেশনে ঢোকার পূর্বেই যাত্রীগণকে টিকেট সংগ্রহ করতে হয় এবং ইলেক্ট্রনিক পদ্ধতিতে ভাড়া আদায় করা হয়ে থাকে। বাসে উঠা নামার জন্য বাসে চওড়া দরজার ব্যবস্থা থাকে এবং বাসগুলো ষ্টেশন প্লাটফর্মের সমতলে (Level Boarding) থামিয়ে যাত্রী সাধারণের দ্রুত আরোহণ ও নির্গমনের ব্যবস্থা করে দেয়।

বিআরটি লাইন-৩ করিডোরের উত্তর অংশটি হযরত শাহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, টঙ্গী, চৌরাস্তা এবং শিববাড়ি-গাজীপুরসহ ২০.২ কিলোমিটার পযন্ত বিস্তৃত। বিমানবন্দর হতে গাজীপুর পর্যন্ত বিআরটি করিডোরটিতে রাস্তার মাঝখানে উভয়দিকে ১টি করে বিআরটি লেন থাকবে যা কেবল মাত্র বিআরটি বাস চলাচলের জন্য নির্ধারিত থাকবে। বিমানবন্দর থেকে গাজীপুর পর্যন্ত বিআরটি লেনের পাশাপাশি করিডোরটিতে উভয়দিকে দুটি করে মিক্সড ট্রাফিক লেন, ১টি করে নন-মোটরাইজড বা সার্ভিস লেন এবং উভয়পাশে ফুটপাথ থাকবে। এ ছাড়া রাস্তার উভয়পাশের আড়াআড়ি রাস্তাগুলো সংস্কার করে বিআরটি ফিডার রোড হিসেবে উন্নয়ন করা হচ্ছে। ফুটপাথের নিচ দিয়ে উন্নতমানের এবং অধিক ক্ষমতাসম্পন্ন ড্রেইনেজ এর ব্যবস্থা থাকবে।

বিআরটি বাসের জন্য ডেডিকেটেড লেনের ব্যবস্থা এবং সড়ক প্রশস্তকরণের ফলে বিআরটি বাসগুলি করিডোরের অন্যান্য যান চলাচলে বাধা সৃষ্টি করবে না। এছাড়া ফ্লাইওভার এবং গুরুত্বপূর্ণ ইন্টারসেকশান সমূহে মিক্সড ট্র্যাফিক লেনের গাড়ীগুলোর জন্য ইউ-টার্ন এবং ডান/বাম দিকে যাওয়ার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা থাকবে।

বিআরটি বাসগুলোর যাতায়াত নির্বিঘ্ন এবং নিরবিচ্ছিন্ন করার জন্য করিডোরের ছয়টি গুরুত্বপূর্ণ যানজট প্রবণ ইন্টারসেকশনে ফ্লাই-ওভার নির্মাণাধীন রয়েছে। হাউজ বিল্ডিং থেকে চেরাগ আলী পর্যন্ত সাড়ে চার কিলোমিটার বিআরটি লেনসহ ছয় লেনের এলিভেটেড সেকশান নির্মিত হচ্ছে। বিদ্যমান চার লেনের টঙ্গী সেতুর স্থানে উভয়দিকে ১টি করে বিআরটি লেনসহ ১০ লেনবিশিষ্ট সেতু নির্মিত হচ্ছে। টঙ্গী সেতু থেকে আব্দুল্লাহপুর আশুলিয়া রোড বরাবর একটি র‌্যাম্পের ব্যবস্থা থাকবে।

এ ছাড়াও লেন পৃথকীকরণ, জ্বালানী-সাশ্রয়ী বৈদ্যুতিক সড়ক বাতি স্থাপন এবং উচ্চমানের ড্রেইনেজ ব্যবস্থার মাধ্যমে বিআরটি সিস্টেম সার্বিক ট্র্যাফিক ব্যবস্থাপনার মান উন্নীত করার মাধ্যমে উত্তর ঢাকার ভূদৃশ্য এবং পরিবেশের উন্নতির জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে।